1. sylhetmohanagarbarta@gmail.com : সিলেট মহানগর বার্তা :
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ১২:২৮ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
জরুরী নিয়োগ চলছে দেশের প্রতিটি বিভাগীয় প্রতিনিধি, জেলা,উপজেলা, স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি বা সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।
প্রধান খবর:
মানবিক সাহায্যের আবেদন বাঁচতে চায় ৮ বছর বয়সী শিশু রিয়া মনি সাংবাদিক গোলজারের মায়ের ইন্তেকাল, দাফন সম্পন্ন,আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া কবি মুহিত চৌধুরীর জন্মদিন আজ ওসমানী হাসপাতালের কর্মচারীরা ওয়ার্ড মাষ্টার রওশন হাবিব ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারী আব্দুল জব্বারের হাতে জিম্মি সাংবাদিক তাওহীদকে প্রাণনাশের হুমকিতে অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্বেগ সিলেটে সাংবাদিক তাওহীদুল ইসলামকে প্রাণনাশের হুমকি, থানায় জিডি লিডিং ইউনিভার্সিটি থেকে পেশাগত অসদাচরণের দায়ে স্থপতি রাজন দাস চাকুরিচ্যুত নবগঠিত ২৮, ২৯, ৩০,৪০, ৪১ ও ৪২ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও যুগ্ম আহবায়কের নাম ঘোষণা গোলাপগঞ্জ উপজেলার উন্নয়ন মেলার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান গেয়ে মাতিয়েছেন হিল্লোল শর্মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা’র ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মসূচী

সাংবিধানিক সঙ্কট তৈরি করছে সাংবিধানিক যায়গায় থেকে এমন ইঙ্গিত দিয়ে সতর্ক করে দিয়েছেন পশ্চিম বাংলার রাজ্যপাল জগদীশ ধনকড়।

  • প্রকাশিত: শনিবার, ২১ নভেম্বর, ২০২০
  • ৮৬ বার পড়া হয়েছে

ভারত থেকে নিউজ দাতা মনোয়ার ইমাম। দৈনিক বাংলাদেশ ৭১ সংবাদ।
তার মতে পশ্চিম বাংলার সাংবিধানিক অধিকার কে নস্ট করে দিচ্ছে বতমান সরকার। তার দেওয়া গত 7, অক্টোবর পশ্চিম বাংলা সরকারের প্রতি চিটির উল্লেখ করেন। তার ব্যাখ্যা সম্পত্তি পশ্চিম বাংলায় বিভিন্ন যায়গায় যে ভাবে রাজনৈতিক দলের নেতা ও কর্মীদের এবং সাধারণ মানুষের খুন হয়ে যাচ্ছে তার জন্য দায়ী প্রশাসন। সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে প্রশাসন তার উত্তর জানতে রাজভবন থেকে চিটি পাঠানো হয় রাজ্যে সরকার মুখ্যসচিব ও সরাস্ট সচিব এর কাছে। এবং পশ্চিম বাংলার পুলিশ প্রধানকে একই চিটি পাঠানো হয়েছে। তার এখনো পর্যন্ত উত্তর না পাওয়া তে সাংবিধানিক অধিকার কে অপব্যবহার করছে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন পশ্চিম বাংলার রাজ্যপাল জগদীশ ধনকড়। তিনি বলেন এমন চলতে থাকলে আগামী দিনে সাংবিধানিক অধিকার প্রয়োগ করতে বাধ্য হবে রাজভবন।তার মতে সাংবিধানিক যায়গায় থেকে যদি কেউ সাংবিধানিক সঙ্কট তৈরি করে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে পিছুপা হবে না রাজ্যপাল। কারণ সরকার যারা চালায় তারা সকলেই ভারত সরকারের অধীনে আই এ এস ও আই পি এস অফিসার। তাদের দায়িত্ব পালন করতে হবে সাংবিধানিক কাঠামোর মধ্যে দিয়ে।তারা যদি কোন রাজনৈতিক দলের দল দাস এ পরিনত হয় তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বাধ্য থাকবে। বতমান পশ্চিম বাংলা সরকার এর যত আই পি এস ও আই এ এস অফিসার আছেন তারা ক্ষমতায় থাকতে বতমান সরকারের দলদাস এ পরিনত হয়েছে বলে অভিযোগ করেন। যদি সাধারণ মানুষ তার ন্যায় অধিকার থেকে বঞ্চিত হয় তাহলে তিনি সাংবিধানিক ভাবে এর মোকাবেলা করতে বাধ্য হবে।। ভারত থেকে নিউজ দাতা মনোয়ার ইমাম।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: এন আর