1. sylhetmohanagarbarta@gmail.com : সিলেট মহানগর বার্তা :
বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:৩০ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
জরুরী নিয়োগ চলছে দেশের প্রতিটি বিভাগীয় প্রতিনিধি, জেলা,উপজেলা, স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি বা সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।
প্রধান খবর:
মানবিক সাহায্যের আবেদন বাঁচতে চায় ৮ বছর বয়সী শিশু রিয়া মনি সাংবাদিক গোলজারের মায়ের ইন্তেকাল, দাফন সম্পন্ন,আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া কবি মুহিত চৌধুরীর জন্মদিন আজ ওসমানী হাসপাতালের কর্মচারীরা ওয়ার্ড মাষ্টার রওশন হাবিব ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারী আব্দুল জব্বারের হাতে জিম্মি সাংবাদিক তাওহীদকে প্রাণনাশের হুমকিতে অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্বেগ সিলেটে সাংবাদিক তাওহীদুল ইসলামকে প্রাণনাশের হুমকি, থানায় জিডি লিডিং ইউনিভার্সিটি থেকে পেশাগত অসদাচরণের দায়ে স্থপতি রাজন দাস চাকুরিচ্যুত নবগঠিত ২৮, ২৯, ৩০,৪০, ৪১ ও ৪২ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও যুগ্ম আহবায়কের নাম ঘোষণা গোলাপগঞ্জ উপজেলার উন্নয়ন মেলার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান গেয়ে মাতিয়েছেন হিল্লোল শর্মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা’র ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মসূচী

শরিয়তপুর পৌরসভা নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল।

  • প্রকাশিত: সোমবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৭৭ বার পড়া হয়েছে

শরিয়তপুর থেকে আকতার হোসেনের প্রতিবেধন :

শরীয়তপুর পৌরসভা নির্বাচনে ১৮ টি ভোট কেন্দ্রের ফলাফলে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী পারভেজ রহমান জন ২৩ হাজার ২১৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী তানভীর আহমেদ বেলাল ১ হাজার ৩৭৬। বিএনপির প্রার্থী এ্যাড. লুৎফর রহমান ঢালী ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ১ হাজার ২৭০ ভোট, জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাহিদ সরদার ১৯৯।
সংরক্ষিত-১ কাউন্সিলর পদে ফেরদৌসী আক্তার চশমা প্রতিকে ৩ হাজার ৭৪০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মেবিন আক্তার আনারস প্রতিকে পেয়েছেন ৩ হাজার ১৭৫ ভোট। অপর প্রার্থী রাশিদা বেগম জবাফুল প্রতিকে পেয়েছেন ২ হাজার ৮৭ ভোট।
সংরক্ষিত-২ কাউন্সিলর পদে সৈয়দা মাহমুদা খানম জবাফুল প্রতিকে ৩ হাজার ১৯৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোসা. তাজিয়া আক্তার আনারস প্রতিকে পেয়েছেন ১ হাজার ৫১২ ভোট পেয়েছেন। অপর প্রার্থী রোকেয়া আক্তার বলপেন প্রতিকে ১ হাজার ৩০৯, সেফালী বেগম অটোরিক্সা প্রতিকে ১ হাজর ২৫, জাহানারা আক্তার ডলি টেলিফোন প্রতিকে ৯৯৫ ও মাকসুদা বেগম চশমা প্রতিকে ৬২৬ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।
সংরক্ষিত-৩ কাউন্সিলর পদে জবাফুল প্রতিকে ইমু আক্তার ২ হাজার ৭৯৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পান্না খান চশমা প্রতিকে পেয়েছেন ২ হাজার ৬৭৪ ভোট। অপর প্রার্থী রহিমা বেগম অটোরিক্সা প্রতিকে ১ হাজার ৫৫২ ও আকলিমা তালুকদার আনারস প্রতিকে ১ হাজার ৩১১ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।
সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১নং ওয়ার্ডে মো. জাহাঙ্গীর মিয়া উটপাখি প্রতিকে ১ হাজার ৪২৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. সাইফুর রহমান রাজ্জাক ব্ল্যাক বোর্ড প্রতিকে পেয়েছেন ১ হাজার ৪০২ ভোট। অপর প্রার্থী কে.এম. শফিকুর-নুর-তপন পানির বোতল প্রতিকে পেয়েছেন ১১৮ ও সরদার এ.কে.এম চাঁন মিয়া টেবিল ল্যাম্প প্রতিকে পেয়েছেন ১০ ভোট।
২ নং ওয়ার্ডে বিল্লাল হোসাইন খান উটপাখি প্রতিকে ৯৭৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. মানিক মোল্যা পানির বোতল প্রতিকে পেয়েছেন ৮৬৬ ভোট। অপর প্রার্থী বর্তমান কাউন্সিলর সিদ্দিক চোকদার টেবিল ল্যাম্প প্রতিকে পেয়েছেন ৭৬৯ ও আব্দুল সাত্তার খলিফা ডালিম প্রতিকে পেয়েছেন ৩২৯ ভোট পেয়েছেন।
৩ নং ওয়ার্ডে মোঃ বাচ্চু বেপারী ১ হাজার ৫৬২ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মো. ফারুক আহম্মেদ চৌকিদার ডালিম প্রতিকে পেয়েছেন ৯৯৬ ভোট। ওলিউর রহমান রাজু ব্ল্যাক বোর্ড প্রতিকে পেয়েছেন ৩৮৬, আলমগীর মাদবর পাঞ্জাবী প্রতিকে ১০৮, কে.এম. রমিজ উদ্দিন উটপাখি প্রতিকে ৬৮ ও মো. কবির হোসেন পানির বোতল প্রতিকে ১৭ ভোট পেয়েছেন।
৪ নং ওয়ার্ডে মোয়জ্জেম হোসেন ঢালী উটপাখি প্রতিকে ৮৬১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিলেন পানির বোতল প্রতিকের আমিনুল ইসলাম সরদার পেয়েছেন ৭১২ ভোট। তাইজুল ইসলাম টেবিল ল্যাম্প প্রতিকে ৫৮৫, শাহরিয়ার আহসান ডালিম প্রতিকে ৪৮৭ ও আরিফ উদ্দিন আহমেদ ব্লাক বোর্ড প্রতিকে ২০ ভোট পেয়েছেন।
৫ নং ওয়ার্ডে মো. আবুল কাশেম মোল্যা পানির বোতল প্রতিকে ১ হাজার ২৪৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. সাত্তার পাহাড় পাঞ্জাবী প্রতিকে পেয়েছেন ১ হাজর ২৩০ ভোট। অপর প্রার্থী ছোবাহান পেদা উটপাখি প্রতিকে পেয়েছেন ৪৬৮ ভোট।
৬ নং ওয়ার্ডে হোসেন মোহাম্মদ আলমগীর পানির বোতল প্রতিকে ১ হাজার ৭২৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আতিকুর রহমান ঢালী ডালিম প্রতিকে ১ হাজার ১৬৬ ভোট পেয়েছেন। মোস্তফা হাওলাদার ব্রিজ প্রতিকে ১২৩, মো. দেলোয়ার হোসেন বাঘা টেবিল ল্যাম্প প্রতিকে ৩০ ও মো. নুরুল ইসলাম শিকদার উটপাখি প্রতিকে ১৭ ভোট পেয়েছেন।
৭ নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর আমির হোসেন সিকদার পানির বোতল প্রতিকে ১ হাজার ৮৩২ ভোট পেয়ে পুনরায় কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিল্লাল হোসেন উটপাখি প্রতিকে পেয়েছেন ১ হাজার ২২৮ ভোট। জাকির হোসেন কামরু ডালিম প্রতিকে ১৯ ও আমিনুল হক টেবিল ল্যাম্প প্রতিকে ১২ ভোট পেয়েছেন।
৮ নং ওয়ার্ডে মো. ফরিদ হোসেন টেবিল ল্যাম্প প্রতিকে ৯২৪ ভোটে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মঞ্জুর হোসেন মন্টু পাঞ্জাবী প্রতিকে পেয়েছেন ৭৮১ ভোট। অপর প্রার্থী বর্তমান কাউন্সিলর মো. আব্দুল রশিদ সরদার পানির বোতল প্রতিকে পেয়েছেন ৪৬৯ ভোট, মো. খলিলুর রহমান উটপাখি প্রতিকে ৪৩৭ ভোট ও মোঃ মোনায়েম খান ডালিম প্রতিকে ২৭ ভোট পেয়েছেন।
৯ নং ওয়ার্ডে কে এম পলাশ ব্রিজ প্রতিকে ৭১৭ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মো. জলিল সরদার ঢেঁড়শ প্রতিকে পেয়েছেন ৬৮৫ ভোট। আজাদ রহমান পানির বোতল প্রতিকে ৪০১, মোতালেব শেখ উটপাখি প্রতিকে ৩৪৬, সঞ্জীব নাগ ব্ল্যাক বোর্ড প্রতিকে ৩১০, রঘুনাথ পোদ্দার ডালিম প্রতিকে ৫৪, মো. আলম তালুকদার পাঞ্জাবী প্রতিকে ৫২, মো. আনোয়ার হোসেন তালুকদার টেবিল ল্যাম্প প্রতিকে ৪০ ও আমির হোসেন টিউব লাইট প্রতিকে ২৮ ভোট পেয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: এন আর