1. sylhetmohanagarbarta@gmail.com : সিলেট মহানগর বার্তা :
বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৩২ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
জরুরী নিয়োগ চলছে দেশের প্রতিটি বিভাগীয় প্রতিনিধি, জেলা,উপজেলা, স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি বা সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।
প্রধান খবর:
মানবিক সাহায্যের আবেদন বাঁচতে চায় ৮ বছর বয়সী শিশু রিয়া মনি সাংবাদিক গোলজারের মায়ের ইন্তেকাল, দাফন সম্পন্ন,আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া কবি মুহিত চৌধুরীর জন্মদিন আজ ওসমানী হাসপাতালের কর্মচারীরা ওয়ার্ড মাষ্টার রওশন হাবিব ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারী আব্দুল জব্বারের হাতে জিম্মি সাংবাদিক তাওহীদকে প্রাণনাশের হুমকিতে অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্বেগ সিলেটে সাংবাদিক তাওহীদুল ইসলামকে প্রাণনাশের হুমকি, থানায় জিডি লিডিং ইউনিভার্সিটি থেকে পেশাগত অসদাচরণের দায়ে স্থপতি রাজন দাস চাকুরিচ্যুত নবগঠিত ২৮, ২৯, ৩০,৪০, ৪১ ও ৪২ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও যুগ্ম আহবায়কের নাম ঘোষণা গোলাপগঞ্জ উপজেলার উন্নয়ন মেলার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান গেয়ে মাতিয়েছেন হিল্লোল শর্মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা’র ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মসূচী

বাঘায় টিএসপি সারে দাম ছয়শত টাকা আকর্ষিক বৃদ্ধি!

  • প্রকাশিত: বুধবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২০
  • ৪৪ বার পড়া হয়েছে

রাজশাহী প্রতিনিধি:

রাজশাহীর বাঘায় টিএসপি সারের সংকট দেখিয়ে ৬শত টাকা দাম বৃদ্ধির ফলে বিপাকে পড়েছে সাধারণ কৃষকেরা। বর্তমানে উপজেলার মাঠে বিভিন্ন রকম সবজি , আলু,পেঁয়াজ, রসুনসহ বিভিন্ন ফসল লাগাচ্ছেন কৃষকরা। এ সময়ে চাষীরা পর্যাপ্ত টিএসপি ও ডিএপি সার পাচ্ছেন না। বরাদ্দ কম পাওয়া গেছে জানিয়ে সবজি মৌসুমে সিন্ডিকেট করে সারের দাম বাড়ানোর ও অভিযোগ রয়েছে ডিলারদের বিরুদ্ধে।

উপজেলার বেংগাড়ী এলাকার আশাদুল ইসলাম আলু ও পেঁয়াজ-রসুন চাষী জানালেন, এ বছর আমি ১৫ বিঘা আলু ১৮ বিঘা রসুন এবং ২০ বিঘা পেঁয়াজের চাষাবাদ করছি এতে আমার টিএসপি সারের জন্য অতিরিক্ত প্রায় ৩২ হাজার টাকা খরচ বেড়েছে। টিএসপি সার যেখানে ছিল ১১শত টাকা বস্তা, এখন ১৭ শত টাকা দাম নিলেও প্রয়োজনমতো পাওয়া যাচ্ছে না। এবার চাষআবাদে আমরা কৃষক অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হবো।তাছাড়াও প্রয়োজন মতো টিএসপি ও ডিএপি সার পাওয়া যাচ্ছে না।

প্রতিবছরের মতো এবারও আগাম সবজি চাষ শুরু করেছেন বাঘা উপজেলার কৃষকেরা। এর মধ্যে এখন শুরু হয়েছে টমেটো, বাঁধাকপি, ফুলকপি, মুলাসহ শীতকালীন সবজি চাষাবাদ। তাদের প্রত্যেকেরই পাঁচ থেকে দশ বস্তা টিএসপি সারের প্রয়োজন হয়। উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য সার ব্যবহার করেন সকল কৃষকই।

চাষের মৌসুমের শুরু এবং শেষের দিকে সার পেতে সমস্যা না হলেও, ভরা মৌসুমে ডিলাররা সিন্ডিকেট করে সারের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন কয়েকজন স্থানীয় কৃষক।

এ বিষয়ে বাঘা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শফিউল্লাহ সলতান বলেন,বাঘা উপজেলায় চকরাজাপুর ইউনিয়ন ছাড়া ৬টি ইউনিয়নে সার মূূল ডিলার ১জন এবং সাব ডিলার ৯জন করে রয়েছে। বাঘা এবং আড়ানী পৌরসভায়
আলাদা ২ জন ডিলার রয়েছেন। উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তারা ডিলারদের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন এবং সরকারি ১১শত টাকা টিএসপি প্রতি বস্তার দাম নির্ধারণ থাকায় অতিরিক্ত কোনো মূল্যে সার ডিলার বিক্রি করতে পারবে না।
উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর কৃৃৃষি কর্মকর্তা শফিউল্লাহ সুলতান আরো বলেন,সিন্ডিকেট করে কোন ডিলার সারের দাম বেশি নিলে যে কোনো ক্রেতা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ জানালে আমরা এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিব।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: এন আর