1. sylhetmohanagarbarta@gmail.com : সিলেট মহানগর বার্তা :
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ১২:০৪ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
জরুরী নিয়োগ চলছে দেশের প্রতিটি বিভাগীয় প্রতিনিধি, জেলা,উপজেলা, স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি বা সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।
প্রধান খবর:
মানবিক সাহায্যের আবেদন বাঁচতে চায় ৮ বছর বয়সী শিশু রিয়া মনি সাংবাদিক গোলজারের মায়ের ইন্তেকাল, দাফন সম্পন্ন,আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া কবি মুহিত চৌধুরীর জন্মদিন আজ ওসমানী হাসপাতালের কর্মচারীরা ওয়ার্ড মাষ্টার রওশন হাবিব ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারী আব্দুল জব্বারের হাতে জিম্মি সাংবাদিক তাওহীদকে প্রাণনাশের হুমকিতে অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্বেগ সিলেটে সাংবাদিক তাওহীদুল ইসলামকে প্রাণনাশের হুমকি, থানায় জিডি লিডিং ইউনিভার্সিটি থেকে পেশাগত অসদাচরণের দায়ে স্থপতি রাজন দাস চাকুরিচ্যুত নবগঠিত ২৮, ২৯, ৩০,৪০, ৪১ ও ৪২ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও যুগ্ম আহবায়কের নাম ঘোষণা গোলাপগঞ্জ উপজেলার উন্নয়ন মেলার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান গেয়ে মাতিয়েছেন হিল্লোল শর্মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা’র ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মসূচী

বগুড়ায় শেরপুরে অবাধে চলছে মাটিকাটার মহােৎসব,হ্রাস পাচ্ছে কৃষি জমি!

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০
  • ৮০ বার পড়া হয়েছে

অশোক সরকার,বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃবগুড়ার শেরপুরে উপজেলার পানিসাড়া হিন্দুপাড়ায় আইন কানুনের তোয়াক্কা না করে আবাদে চলছে আবাদি কৃষি জমি খনন করে পুকুর তৈরি ফলে দিন দিন হ্রস পাচ্ছে কৃষি জমি।পুকুর খননের ফলে বিপাকে রয়েছেন স্হানীয় কৃষকেরা, দৃষ্টি দিচ্ছে না স্হানীয় প্রশাসন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় শেরপুর উপজেলার বিশালপুর ইউনিয়ন এর পানিসাড়া হিন্দুপাড়া গ্রামের নামক স্হানে প্রভাবশালী” আব্দুল খালেক” এর ১০/১১বিঘা আবাদি কৃষি জমিতে চলছে বেকু দিয়ে মাটি খনন করে পুকুর নির্মাণ এর কাজ চলছে।এর ফলে স্হানীয় কৃষকরা পরেছেন মহা বিপাকে।

আবাদি কৃষি জমি খনন করে পুকুর নির্মাণের প্রসঙ্গে পানিসাড়া গ্রামের কৃষক ইদ্রিস আলী বলেন, এই খননাধীন জমির পাশেই আমার ২০ শতাংশ ধানী জমি আছে,
পাশে পুকুর হলে আমার ধানী জমির উৎপাদন কমে যাবে।কারণ জমিতে জলাবদ্ধতা হবে এবং প্রভাবশালী হওয়ার কারণে আমরা কিছু বলতে পারছি না ।

পানিসাড়ার হিন্দুপাড়ার সহাদেব চন্দ্র সরকার বলেন খননাধীন এই পুকুরের পাশে আমাদের ৬ ভায়ের পৈত্রিক ৫ বিঘা ধানী জমি রয়েছে, এখানে পুকুর খনন হলে আমাদের উত্তর ও দক্ষিণের জমির পানি পশ্চিমে গড়ে খননাধীন জমি পশ্চিমে হওয়ার কারণে পানি গরার ব্যবস্হা বন্ধ হয়ে যাবে, ফলে জলাবদ্ধতা হবে ফসলের উৎপাদন কমবে। এছাড়াও খননাধীন জমির মাঝ খান দিয়ে আন্যনা জমিতে যাতায়াতের প্রধান আইল বা (সড়ক), এই জন্য খননাধীন জমি চারিদিকে থাকা আন্যনা মালিকের প্রায় ২০ বিঘা আবাদি কৃষি জমিতে যাতায়াতের সমস্যা হবে।

পুকুর খনন প্রসঙ্গে খননাধীন জমির মালিক আব্দুল খালেককে পুকুর খননের কোনো অনুমতি আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন আমিতো কোনো অনুমতি নেইনি, কোনো অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন আছে কি?

এ বিষয়ে মুঠোফোনে শেরপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শারমিন আক্তারের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে ব্যবস্হা নিবেন উপজেলা ভূমি অফিস,এ ব্যপারে কৃষি অধিদপ্তরের কোনো কিছু করনীয় নাই।

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে শেরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিয়াকত আলী শেখ বলেন, আমরা পুকুর খননের কোনো অনুমতি দেয় নি বলে তিনি মোবাইল কেটে দেন,পরর্বতীতে ফোন দিলে তিনি রিসিভ করে না।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: এন আর