1. sylhetmohanagarbarta@gmail.com : সিলেট মহানগর বার্তা :
বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:২৬ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
জরুরী নিয়োগ চলছে দেশের প্রতিটি বিভাগীয় প্রতিনিধি, জেলা,উপজেলা, স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি বা সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।
প্রধান খবর:
মানবিক সাহায্যের আবেদন বাঁচতে চায় ৮ বছর বয়সী শিশু রিয়া মনি সাংবাদিক গোলজারের মায়ের ইন্তেকাল, দাফন সম্পন্ন,আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া কবি মুহিত চৌধুরীর জন্মদিন আজ ওসমানী হাসপাতালের কর্মচারীরা ওয়ার্ড মাষ্টার রওশন হাবিব ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারী আব্দুল জব্বারের হাতে জিম্মি সাংবাদিক তাওহীদকে প্রাণনাশের হুমকিতে অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্বেগ সিলেটে সাংবাদিক তাওহীদুল ইসলামকে প্রাণনাশের হুমকি, থানায় জিডি লিডিং ইউনিভার্সিটি থেকে পেশাগত অসদাচরণের দায়ে স্থপতি রাজন দাস চাকুরিচ্যুত নবগঠিত ২৮, ২৯, ৩০,৪০, ৪১ ও ৪২ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও যুগ্ম আহবায়কের নাম ঘোষণা গোলাপগঞ্জ উপজেলার উন্নয়ন মেলার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান গেয়ে মাতিয়েছেন হিল্লোল শর্মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা’র ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মসূচী

নোয়াখালী কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর দাঁতের ডা: মোরশেদা ইয়াসিন এর বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ।

  • প্রকাশিত: রবিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২০৮ বার পড়া হয়েছে

মোঃ শালমান শাহ নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধি

অনিয়ম এর বিরুদ্ধে দ্রুত প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হোক। তার বিরুদ্ধে যত অভিযোগ এই ডাক্তার দীর্ঘদিন উপজেলা স্বাস্থ্য কপপ্লেক্স এ কর্মরত আছে। কর্তব্যরত অবস্থায় যখনি কোন রোগী সরকারি হাসপাতালে তাকে দেখানোর জন্য যায় সে সঙে সঙে রোগীকে বলে তার ব্যাক্তিগত চেম্বার হাসপাতালের একটু অদূরে ইয়াসমিন ডেন্টাল কেয়ারে যাওয়ার জন্য আর নিজের পায়দা লুঠানোর জন্য! প্রশ্ন ? হয়লো সে রাস্ট্রের কোষাগার থেকে বেতন নেয় সমস্ত সুযোগ সুবিধা নেয় আর বীপরিতে সাধারণ রোগীদের প্রতি রাস্ট্রের বরাদ্দের সেবাটুকু কোথায় ? হাসপাতালের ডিউটি চলাকালীন সময়ে ও সে তার ব্যক্তিগত ইয়াছমিন ডেন্টাল কেয়ারে রোগী দেখে। সে রোগী ও রোগীদের স্বজনদের সাথে তুচ্ছতা ও দাম্ভিকতা নিয়ে কথা বলে যা একজন ডাক্তার এর কাছ থেকে কোন রোগী ই আশা করে না। নিম্নে উল্লেখিত রোগী রাজিয়া খাতুন বয়স ৯০ বছর অসচ্ছল বিদবা ও নি:সন্তান গরিব এই মহিলা যখন সরকারি হাসপাতালে ডা: মোরশেদা ইয়াসমিন কে দেখাতে যায় সে এই বয়স্ক মহিলাকে তার ক্লিনিক এ যেতে বলে যাওয়ার পর ৩০০ টাকা ভিসিট নিয়ে কতগুলো ওষুধ লিখে দেয় তারপর বলে ৩ দিন পরে আবার আসার জন্য তার চেম্বারে। মহিলা আবার গেলো তার চেম্বারে এইবার শুধু লিখে দিলো এক্সরে করাতে হবে ফ্রি আবার ২০০ টাকা ! মহিলা ভিক্ষার সুরে বললো মা রে আমি গরবী মানুষ এই টাকাটা না দিলে হয়না। প্রতিউত্তরে এই কসাই ডাক্তার বলে ডাক্তারের কাছে কোন গরীব ধনী নেই সবাই সমান । মানবিকতা যদি আপনার লোপ পায় তাহলে ডাক্তারি নামের এই মহান পেশা আপনি ছেড়ে দিয়ে কসাই পেশায় নাম লিখান। দেশে তরুণ মেধাবী ও মানবিক ডাক্তার এর অভাব নেই তাদের সুযোগ দিন । ডা: সাবরিনা মার্কা ডাক্তার এই রাস্ট্রের দরকার নেই
নসিকতা বলিছিলেন…
“ডাক্তার সে তো মানুষ নই
মানুষের চোখে সে তো ভগবান
কসাই আর ডাক্তার একি তো নই
কিন্তু দুটোই আজ প্রফেশান
কসাই জবাই করে প্রকাশ্যে দিবালোকে
ওদের আছে ক্লিনিক আর চেম্বার
ও ডাক্তার !”
নোয়াখালী সিভিলসার্জন ও উপজেলার স্থানীয় প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ দ্রুত এই অমানবিক ডাক্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হোক । জনস্বার্থে : এই পোস্ট সবাই কে শেয়ার করার অনুরোদ রইলো

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: এন আর