1. sylhetmohanagarbarta@gmail.com : সিলেট মহানগর বার্তা :
বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৮:২৫ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
জরুরী নিয়োগ চলছে দেশের প্রতিটি বিভাগীয় প্রতিনিধি, জেলা,উপজেলা, স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি বা সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।
প্রধান খবর:
মানবিক সাহায্যের আবেদন বাঁচতে চায় ৮ বছর বয়সী শিশু রিয়া মনি সাংবাদিক গোলজারের মায়ের ইন্তেকাল, দাফন সম্পন্ন,আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া কবি মুহিত চৌধুরীর জন্মদিন আজ ওসমানী হাসপাতালের কর্মচারীরা ওয়ার্ড মাষ্টার রওশন হাবিব ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারী আব্দুল জব্বারের হাতে জিম্মি সাংবাদিক তাওহীদকে প্রাণনাশের হুমকিতে অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্বেগ সিলেটে সাংবাদিক তাওহীদুল ইসলামকে প্রাণনাশের হুমকি, থানায় জিডি লিডিং ইউনিভার্সিটি থেকে পেশাগত অসদাচরণের দায়ে স্থপতি রাজন দাস চাকুরিচ্যুত নবগঠিত ২৮, ২৯, ৩০,৪০, ৪১ ও ৪২ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও যুগ্ম আহবায়কের নাম ঘোষণা গোলাপগঞ্জ উপজেলার উন্নয়ন মেলার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান গেয়ে মাতিয়েছেন হিল্লোল শর্মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা’র ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মসূচী

কুষ্টিয়ার এসপির বক্তব্যের বিরুদ্ধে হেফাজতের বিবৃতিই প্রমাণ করে বাবুনগরী গংরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধীঃ

  • প্রকাশিত: সোমবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৪৪ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধিঃ কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপারের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে দায়িত্বশীল বক্তব্যের বিরুদ্ধে হেফাজত ইসলামের উস্কানীমূলক বিবৃতিই প্রমাণ করে হেফাজতের নেতারা মৌলবাদের পৃষ্ঠপোষক এবং রাষ্ট্র ও সংবিধানের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত বলে বিবৃতিতে দিয়েছে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। আজ ২৮ ডিসেম্বর সোমবার বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ, কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল ও সাধারণ সম্পাদক মো: আল মামুন স্বাক্ষরিত লিখিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।
লিখিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, “কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাতের বক্তব্যকে ইস্যু করে হেফাজতে ইসলামের উস্কানীমূলক বিবৃতির বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করে হেফাজতে ইসলাম আবারও প্রমাণ করেছে যে তারা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না। আজও পর্যন্ত হেফাজতের ইসলামের কোন নেতা জাতীয় স্মৃতিসৌধ ও শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে যাননি। কারণ তারা এখনো পর্যন্ত বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা ও ভাষা আন্দোলনকে মেনে নিতে পারেননি। তাদের মাদ্রাসাগুলোতে জাতীয় পতাকা ওড়ানো হয়না এবং জাতীয় সঙ্গীত বাজানো হয়না। তারা বাংলাদেশের ইতিহাস-ঐতিহ্যকে অস্বীকার করে আসছে। সম্প্রতি বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতার মাধ্যমে হেফাজতে ইসলাম নিজেদের প্রকৃত চরিত্র জাতির কাছে উন্মোচিত করেছে। এরা শান্তির ধর্ম ইসলামকে বিতর্কিত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছে। গত এক মাসে ৪০ জন মাদ্রাসার কোমলমতি শিক্ষার্থী বলাৎকার ও তিনজনের মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনাগুলোর বিষয়ে নীরবতাই প্রমাণ করে হেফাজতের নেতারা বলাৎকারের সমর্থনদাতা। এরা কখনোই ইসলামের আদর্শ ধারণ করে না। এদের কাছে ইসলাম কখনোই নিরাপদ নয়। ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের আবেগকে পুঁজি করে এরা প্রতিনিয়ত অপরাজনীতির চর্চা করছে। সম্প্রতি মামুনুল হক কর্তৃক প্রকাশ্য দিবালোকে নবীজীকে অবমাননা ও মাদ্রাসার কোমলমতি শিক্ষার্থী বলাৎকারকে সমর্থন করাই প্রমাণ করে যে, এরা ধর্ম ব্যবসায়ী এবং ইসলামের প্রকৃত শত্রু। ওয়াজ মাহফিলে ধর্মীয় অপব্যাখ্যা দিয়ে স্বাধীনতা বিরোধী পাকিস্তানী অপশক্তিদের এজেন্ডা

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: এন আর