1. sylhetmohanagarbarta@gmail.com : সিলেট মহানগর বার্তা :
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৫:৩৯ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
জরুরী নিয়োগ চলছে দেশের প্রতিটি বিভাগীয় প্রতিনিধি, জেলা,উপজেলা, স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি বা সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।
প্রধান খবর:
মানবিক সাহায্যের আবেদন বাঁচতে চায় ৮ বছর বয়সী শিশু রিয়া মনি সাংবাদিক গোলজারের মায়ের ইন্তেকাল, দাফন সম্পন্ন,আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া কবি মুহিত চৌধুরীর জন্মদিন আজ ওসমানী হাসপাতালের কর্মচারীরা ওয়ার্ড মাষ্টার রওশন হাবিব ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারী আব্দুল জব্বারের হাতে জিম্মি সাংবাদিক তাওহীদকে প্রাণনাশের হুমকিতে অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্বেগ সিলেটে সাংবাদিক তাওহীদুল ইসলামকে প্রাণনাশের হুমকি, থানায় জিডি লিডিং ইউনিভার্সিটি থেকে পেশাগত অসদাচরণের দায়ে স্থপতি রাজন দাস চাকুরিচ্যুত নবগঠিত ২৮, ২৯, ৩০,৪০, ৪১ ও ৪২ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও যুগ্ম আহবায়কের নাম ঘোষণা গোলাপগঞ্জ উপজেলার উন্নয়ন মেলার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান গেয়ে মাতিয়েছেন হিল্লোল শর্মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা’র ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মসূচী

কুলাউড়া মাহিন কে হারিয়ে ন্যায়বিচার জন্য লড়ে যাচ্ছেন মা।

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ৭ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১১৪ বার পড়া হয়েছে

দেলোয়ার হোসেন
তরফদার

সিলেট বিভাগ ব্যুরো প্রধান

মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার ছকাপন গ্রামের সৌদি প্রবাসী শেখ মুক্তার আলী ছেলে শেখ মাহিন ২০ কে গতবছর করোনা বাইরাস মহামারি সারা বাংলাদেশে ল কডাউন গাড়ী বা মানুষ চলাচল বন্দ্ব ছিল তখন ছিল মে মাস ঐ এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তি জনাব হাফিজ আলী ব্যবসায়ী উনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বা টাটা পিকাপ গাড়ী নিয়মিত চলতো,আর তখন শেখ মাহিন কে হাফিজ আলী উনার বাড়ীতে মুরগির পোল্ট্রি খামারে কাজে নিতেন।গত ৪/৫/২০ তারিখ মাহিন তার মাকে না বলে হাফিজ আলীর ডাকে হাফিজ আলীর কাজে যায়।মাহিন ছিল একটু সরল তাই হাফিজ আলী যখন যা ইচ্ছে দিত।করোনা বাইরাসে লকডাউন গাড়ী না চল্লে হাফিজ আলীর টাটা পিকাপ বন্দ্ব থাকেনি, হাফিজ আলীর ব্যবসায়ী পাটনার জুবেল আলীর মুরগীর ফারমে মাহিন কাজ করে,কিন্তূ করোনা বাইরাস এ লকডাউন থাকায় অনেক দূর ছিল তাই মাহিন জুবেল মিয়ার পাটনার হাফিজ আলী মিলে মাহিন কে তার গাড়ীতে হেল্ফার কাজে নেওয়ার চেষ্টা করে।মৃত শেখ মাহিন কে তার মা গাড়ীতে যাইতে দিতেন না,ঐ এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তি হাফিজ আলী ও জুবেল আলী মাহিনের কিপ্ত হন মাহিনের হেল্পার কাজে না যাওয়ায়।৪/৫/২০ তারিখ সকালে মাহিন হাফিজ আলীর বাড়িতে কাজে যায়,উনি উনার গাড়ীতে কাজে যাইতে বল্লে মাহিন মানা করে পরে কিভাবে গাড়ীতে কাজে গেল মাহিন মা জানতেন না,কিছু মাহিন তার নিজের ব্যবহার কিত মোবাইল থেকে অনুমান সকাল ৯ টার তার মাকে ফোন করে বলে আমি হাফিজ আলী চাচার টাটা পিকাপ গাড়ীতে আছি মা গাড়ী থেকে নামিয়া আসতে নিদেশ দেন,এর কিছু পর অনুমান ৯.৩০ ঘটিকায় খবর পান মাহিন আলী এক্সিডেন্ট হইছে মা এলাকাবাসির সহযোগিতায় প্রথমে কুলাউড়া উপজেলার হাসপাতালে পরে মাহিনের অবস্থা খারাপ দেখে ডক্টর মাহিন কে সিলেট উছমানি হাসপাতালে নেওয়া হয় সেখানে চিকিৎসা চলাকালিন অবস্তায় শেখ মাহিন মারাযায়।পরে সিলেট কতোয়ালি থানার এস আই দেলোয়ার হোসেন মাহিনের সুরতহাল রেড়ি করেন,মাহিনের শরীরে প্রতিটি অংগে জখমের আগাত মারার চিন্ন পাওয়া যায়।পরে মাহিনের দাফন শেষে মাহিনের মা কুলাউড়া থানায় চারজন কে বিবাদী করে অভিযোগ দাখিল করেন কিন্তূ কুলাউড়া থানার পুলিশ মাহিনের মার অভিযোগ ভুল বলে পুলিশ কতৃক নিজে অঞ্জাত আসামি দিয়ে এক্সিডেন্ট পেনেল কোট মামলা রুজু করেন।মামলা নং ৭৫/২০ এর বাদি তদন্তকারী অফিসার এস আই নিরঞ্জন কে বার বার হাফিজের গাড়ীর নাম্বার দেন পরে হাফিজ আলীর ড্রাইভার এর বাড়ী থেকে টাটা পিকাপ কুলাউড়া থানায় নিয়ে আসেন এবং গাড়ীতে মাহিন হত্যার রক্তের দাগ পান। কিন্তূ মাহিন হত্যার সাক্ষীগন বার বার এস আই নিরঞ্জন কে গাড়ীটি হাফিজ ও জুবেল এর মালিকানা গাড়ী ছিল।হাফিজের গাড়ীতে তারা মাহিন কে যাইতে দেখছে।কিন্তূ তদন্তকারী অফিসার তাদের কথামত জবানবন্দি না নিয়া মনগড়া জবানবন্দি রেকর্ড করে আদালতে মামলা ফাইনাল রিপোর্ট দেন,মৃত শেখ মাহিন এর মা ছেলে হত্যার বিচার চেয়ে গত ৬/১/২০২১ তারিখ মৌলভীবাজার কুলাউড়া বিচারক আদালতে নারাজি দেন,এই নারাজি টাটা পিকাপ গাড়ীর নাম্বার চারজন কে বিবাদী করে হত্যা মামলা আমলে নিতে আবেদন করেন,বিবাদীগন ১ হাফিজ আলী পিতা হাজী কলা মিয়া সাং কাডেরা থানা কুলাউড়া। ২ জুবেল আলী পিতা হারিছ আলী সাং জায়ফরনগর থানা জুড়ী,৩ জইন উদ্দিন পিতা অঞ্জাত সাং টালিয়াউড়া গোয়ালবাড়ী থানা জুড়ী ড্রাইভার। ৪ তারেক মিয়া পিতা সুরুজ মিয়া সাং জায়ফর নগর থানা জুড়ী। এই বিবাগন ও তাদের প্রভাবশালী ব্যক্তি মাহিনের পরিবার কে বার বার হুমকি দামকি দিচ্ছে এই মামলা পরিচালনা না করতে, না হয় মাহিনের মত তারা রাস্তায় কোথায় যাওয়ার পথে গাড়ী চাপা দিয়া প্রানে হত্যা করে এক্সিডেন্ট দেখানো হবে,মাহিনের পরিবার আতংকিত আছে তাদের একটি দ্বাবি মাহিনের হত্যার আসামি সাজা পায়।আগামি আরও বিস্তারিত জানতে পারবেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: এন আর