1. sylhetmohanagarbarta@gmail.com : সিলেট মহানগর বার্তা :
রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:২১ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
জরুরী নিয়োগ চলছে দেশের প্রতিটি বিভাগীয় প্রতিনিধি, জেলা,উপজেলা, স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি বা সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।
প্রধান খবর:
মানবিক সাহায্যের আবেদন বাঁচতে চায় ৮ বছর বয়সী শিশু রিয়া মনি সাংবাদিক গোলজারের মায়ের ইন্তেকাল, দাফন সম্পন্ন,আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া কবি মুহিত চৌধুরীর জন্মদিন আজ ওসমানী হাসপাতালের কর্মচারীরা ওয়ার্ড মাষ্টার রওশন হাবিব ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারী আব্দুল জব্বারের হাতে জিম্মি সাংবাদিক তাওহীদকে প্রাণনাশের হুমকিতে অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্বেগ সিলেটে সাংবাদিক তাওহীদুল ইসলামকে প্রাণনাশের হুমকি, থানায় জিডি লিডিং ইউনিভার্সিটি থেকে পেশাগত অসদাচরণের দায়ে স্থপতি রাজন দাস চাকুরিচ্যুত নবগঠিত ২৮, ২৯, ৩০,৪০, ৪১ ও ৪২ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও যুগ্ম আহবায়কের নাম ঘোষণা গোলাপগঞ্জ উপজেলার উন্নয়ন মেলার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান গেয়ে মাতিয়েছেন হিল্লোল শর্মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা’র ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মসূচী

একজন মানবিক ও সফল অফিসার আমাদের পটুয়াখালী জেলা পুলিশের সম্মানিত অভিভাবক মাননীয় সার্কেল এস,পি, মোঃ মুকিত হাসান খান স্যার।

  • প্রকাশিত: রবিবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৩০৬ বার পড়া হয়েছে

মোঃ আল মামুন হাওলাদার
পটুয়াখালী জেলা- প্রতিনিধিঃ-পটুয়াখালী জেলার জনগনের আস্থার কেন্দ্র বর্তমানে পটুয়াখালী সার্কেল এস পি মহোদয়, স্যার গত..০৪/০৩/২০২০ইং খ্রিস্টাব্দ তারিখে পটুয়াখালী সার্কেল এস পি হিসেবে যোগদান করেন, ইতিমধ্যেই স্যারের.৬ মাস পূর্ণ হলো, স্যার যোগদানের পরপরই জেলা পুলিশের সদস্যদের মনে জায়গা করে নেয়ার পাশাপাশি জেলার জনগণের মধ্যেও আস্থার প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়েছেন।

স্যারের………. পূর্তিতে স্যারের হাজারো গুণাবলী ও সফলতা রয়েছে, কিন্তু আমি ক্ষুদ্র মানুষ হওয়ায় আমার পক্ষে সকল গুণাবলী লিখা সম্ভব নয়, তথাপিও আমার জানা কিছু গুণাবলি না লিখলেই নয়, স্যার প্রথমে যোগদানের পর পরই জেলার প্রতিটি ইউনিটে পুলিশ সদস্যদের ব্যক্তিগত ও পারিবারিক সমস্যার কথা শুনেন এবং সমাধান করেন, পাশাপাশি স্যার অধীনস্থ সকল পুলিশ সদস্যদের সততা ও ন্যায় নিষ্ঠার সহিত দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা দেন।

স্যারের নির্দেশনা অনুযায়ী সকল পুলিশ সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সর্বদা স্যারের সহায়তা পেয়েছেন, এলাকার শান্তি-শৃঙ্খলা সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয়ে স্যারের সাথে শেয়ার করা সম্ভব হয়েছে এবং স্যারের তড়িৎ সঠিক সমাধানে শতভাগ জনগণের কল্যাণ হয়েছে, এতে স্যারের প্রতি তথা পুলিশের প্রতি জনগণের আস্থা ও ভালোবাসা বৃদ্ধি পেয়েছে। পুলিশের প্রতি জনগণের বিরূপ ধারণা মুছে গিয়ে পুলিশ হয়ে উঠেছে জনগণের প্রকৃত বন্ধু ও ভালোবাসার প্রতীক।

স্যার, পুলিশ সদস্য তথা যে কোন জনসাধারণ পুলিশ লাইন্সের ভিতরে একবার প্রবেশ করলেই পুলিশ সাইন্সের পরিস্কার পরিছন্নতা ও সৌন্দর্যে তার মন কেড়ে নিবে। এছাড়া জেলার প্রতিটি থানায় দেয়ালিকার মাধ্যমে পুলিশের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পেয়েছে এবং পুলিশ সম্পর্কে নানাবিধ তথ্য মানুষ জানতে পেরেছে । যা সত্যি অসাধারণ।

, যার কারনে প্রথমেই জেলার জনগনের মাননীয় সার্কেল মহোদয়ের প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা বৃদ্ধি পেয়েছে।

স্যার, অন্যতম একজন আদর্শবান,সার্কেল এস পি স্যার, অধিনস্তদের সাথে সর্বদা ভালো ব্যবহার করেন এবং তাদের সকলের কথা মনোযোগ সহকারে শুনেন এবং সু-পরামর্শ দেন। এতে স্যারের প্রতি আমাদের ভয়-ভীতি কমে যথানিয়মে নিজের বক্তব্য পেশ করার সাহস যুগিয়েছে।

স্যার, জেলার প্রতিটি থানা এলাকায় গুরুতর অভিযোগ এবং অপরাধ নিয়ন্ত্রণে সরাসরি অংশগ্রহণও তা নিরোধ করে থাকেন, এতে থানা এলাকার গুরুতর অপরাধ দিন দিন কমে যাচ্ছে এবং পেশাদার অপরাধীরাও স্যারের কঠোর সিদ্ধান্তে তাদের অপরাধীর পেশা ছেড়ে দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসছে। স্যারের চোখে দলমত কিংবা ধনী-গরিব, রিক্সাচালক’সহ সব শ্রেণিপেশার মানুষ সমান। স্যার বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বেশে মানুষের মাঝে উপস্থিত হয়ে মানুষের সুখ দুঃখের কথা শুনছেন। স্যার শুধু একজন সার্কেল এস পি, নয়! পাশাপাশি অনেক সামাজিক কর্মকান্ডেও স্যার অংশগ্রহণ করছেন এবং অবদান রাখছেন।

স্যারের উপরোক্ত গুণাবলীতে “পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ” এই স্লোগানকে বাস্তবে রূপ নিয়েছে।পটুয়াখালী জেলার প্রতিটি থানার মানুষের চোখে একজন সৎ, আদর্শবান, ন্যায়নিষ্ঠ ও গরিবের বন্ধু আমাদের মাননীয় সার্কেল এস পি । যা আমাদের জন্য আনন্দের।

এ ছাড়াও স্যার বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে অধীনস্ত পুলিশ সদস্যদের শারীরিক খোঁজখবর নেয়ার পাশাপাশি সকল সদস্যদের মধ্যে স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রী এবং এন্টিবডি তৈরীর জন্য ভিটামিন ও অন্যান্য ঔষধ সরবরাহ করেছেন, এছাড়া আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের মনোবল বৃদ্ধির লক্ষ্যে সার্বক্ষণিকভাবে খোঁজখবর নেয়ার পাশাপাশি তাদের জন্য মৌসুমী ফল সরবরাহ করেছেন, যা সত্যি প্রশংসনীয়।

স্যার, একজন সৎ ও অন্যায়ের কাছে আপোষহীন এবং কোমল মনের অধিকারী সার্কেল এস পি স্যারের নির্দেশে প্রতিটি থানার অফিসার অক্লান্ত পরিশ্রম করে থানা এলাকায় মাদক, চাদাঁবাজ, দখলবাজ, মোবাইল চোর, মিথ্যা মামলায় হয়রানী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী মুক্ত করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন। এছাড়া বর্তমানে করোনা পরিস্থিতিতে স্যারের নির্দেশে প্রতিটি থানায় সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধিতে পুলিশের ভূমিকা সর্বমহলে প্রশংসনীয়। যা চলমান রয়েছে।

আমরা স্যারের মতো একজন সৎ, ন্যায়নিষ্ঠা এবং অন্যায়ের বিরুদ্ধে বজ্রকন্ঠী আওয়াজ তোলা এবং মানবিক অফিসার পেয়ে সত্যিই ধন্য।

এত জেলার বিভিন্ন এলাকার উপকারভোগী সচেতন নাগরিকগন বলেতে দেখা গেছে যে, এমন পুলিশ সুপার আমরা আগে কখনো দেখিনি।

আমি আগেই বলেছি যে, স্যারের কাছে দল-মত নির্বিশেষে ধনী-গরিব, রিক্সাচালকসহ সব শ্রেণিপেশার মানুষ সমান। একজন নির্যাতিত মানুষের শেষ আশ্রয়স্থল হলো পুলিশ। তাই স্যার এটা মনে প্রানে বিশ্বাস করে প্রথমে তাদের সমস্যা শুনার জন্য স্যারের দরজা সর্বদা খোলা রেখেছেন এবং তাদের সমস্যা শুনে তা নিরসনে থানা এলাকার সংশ্লিষ্ট অফিসার’কে নির্দেশনা দিয়ে থাকেন। “পুলিশ জনতার এবং জনতা পুলিশের” এই স্লোগানকে সামনে রেখে এবং সাধারণ মানুষের দোয়া ও ভালোবাসা নিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশকে মাদক, জঙ্গি, সন্ত্রাস মুক্ত করতে এগিয়ে যাচ্ছেন আমাদের মাননীয় সার্কেল এস পি মহোদয়। স্যারের সুদৃহ নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে পটুয়াখালী জেলা পুলিশ।
স্যালুট জানাই স্যারকে……!!

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: এন আর