1. sylhetmohanagarbarta@gmail.com : সিলেট মহানগর বার্তা :
রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ১০:১৯ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
জরুরী নিয়োগ চলছে দেশের প্রতিটি বিভাগীয় প্রতিনিধি, জেলা,উপজেলা, স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি বা সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।
প্রধান খবর:
মানবিক সাহায্যের আবেদন বাঁচতে চায় ৮ বছর বয়সী শিশু রিয়া মনি সাংবাদিক গোলজারের মায়ের ইন্তেকাল, দাফন সম্পন্ন,আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া কবি মুহিত চৌধুরীর জন্মদিন আজ ওসমানী হাসপাতালের কর্মচারীরা ওয়ার্ড মাষ্টার রওশন হাবিব ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারী আব্দুল জব্বারের হাতে জিম্মি সাংবাদিক তাওহীদকে প্রাণনাশের হুমকিতে অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্বেগ সিলেটে সাংবাদিক তাওহীদুল ইসলামকে প্রাণনাশের হুমকি, থানায় জিডি লিডিং ইউনিভার্সিটি থেকে পেশাগত অসদাচরণের দায়ে স্থপতি রাজন দাস চাকুরিচ্যুত নবগঠিত ২৮, ২৯, ৩০,৪০, ৪১ ও ৪২ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও যুগ্ম আহবায়কের নাম ঘোষণা গোলাপগঞ্জ উপজেলার উন্নয়ন মেলার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান গেয়ে মাতিয়েছেন হিল্লোল শর্মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা’র ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মসূচী

আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতির ঘর ভেঙে জায়গা দখল করেছে বিএনপি আসলাম শরীফ ওরফে হানিফ।

  • প্রকাশিত: শনিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২০
  • ৯২ বার পড়া হয়েছে

বিধান কুমার বিশ্বাস। রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধি

রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার নারায়ণপুরে পাংশা মডেল থানার পাশে গত বৃহস্পতিবার পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ঘর ভেঙে দিনে দিনেই প্রাচীর করে জায়গা দখল করেছে বিএমপির আসলাম শরীফ ওরফে হানিফ।

সরেজমিন সূত্রে জানাযায়, হাজরা পাড়ার হোসেন মেম্বার এর নেতৃত্বে বাবুপাড়া দুর্গাপুরের রোস্তম শরীফের ছেলে আসলাম শরীফ ওরফে হানিফ গত ৮ অক্টোবর সকালে ৯ টার দিকে প্রায় এক থেকে দেড় শত লোক নিয়ে নারায়নপুর পাংশা মডেল থানার পাশে পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল জলিল বিশ্বাস এর বাড়িতে এসে ঘর ভেঙে জায়গা দখল করে দিনে দিনেই প্রাচীর করে চলে যায়।
এ বিষয়ে আব্দুল জলিলের পরিবারবর্গ ঘর ভাঙতে নিষেধ করলে কুৎসিত ভাষায় গালিগালাজ করে ও বাড়ির মহিলাদের অশ্লীল কথা বাত্রা বলে ঘর ভেঙে জবরদখল করে পাচির করে চলে যায়।
পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল জলিল বিশ্বাস বলেন ,এস/এ ৩৯৩ খতিয়ানে ৭৮ নং দাগ এটি। এই জমি মৃত হেরাম্বলাল কুন্ডুর।
হেরম্ব লাল কুন্ডু মারা যাবার পর তার দুই পুত্র ওয়ারিশ সূত্রে দেবপ্রসাদ কুন্ডু ও বিমল প্রসাদ কুন্ডু ১০ শতক জমির আট আনা আটানা মালিক হন ।এই দশ শতক জমির মধ্যে দেবপ্রসাদ গত হলে তার তিন পুত্র দীপক কুন্ডু, দিলীপ কুন্ডু, ধীরাজ কুন্ডু ১৯৯৭ সালে মৃত সুলতান মন্ডলের পুত্র নাদের হোসেন এর নিকট ৩ শতক ও ভাদু মন্ডলের পুত্র মান্নান মন্ডল এর নিকট ৪ শতক এওয়াজ নামা দলিল করে। এখানে আটানার মালিক হিসাবে ৫ শতক পায় কিন্তু দেবপ্রসাদ এর পুত্র বর্গ ৭ শতক বিক্রয় ও এওয়াজ করার ফলে আমার বাড়ির সামনে ৭৮ নং দাগের জমি থাকায় অতিরিক্ত বিকৃত 2 শতক আমার জমি ঘর ভেঙে পেশিশক্তির দাপটে জবর দখল করে নিচ্ছে বিএনপি আসলাম শরীফ ওরফে হানিফ । এদিকে আমার বাড়ী হতে বের হবার জন্য দেবপ্রসাদ এর দুইটি দাগ থেকে দুই শতক জমি বিক্রয় করে এক হতে ১.৭০ লিংক আর ৭৮ নম্বর দাগ হতে ০.৩০ লিংকজমি আমার স্ত্রী আখতারুন্নেসা নামে ক্রয় করা হয়। এখন দেখা যাচ্ছে যে দেব প্রসাদের ভাই বিমল প্রসাদ কুন্ডুর আটানার ৫ শতক জমি তাদের দখলে থাকায় হানিফ ও তাদের ক্যাডারবাহিনী অতিরিক্ত জমি আমার হতে নিতে চাচ্ছেন । তাদের অনেক বাধা দেওয়া সত্ত্বেও আমার ঘর বাড়ি ভেঙে দেয়াল করে দখল নিয়ে নিছে। এই ৭৮ নং দাগ হতে আমার স্ত্রী আখতারুন্নেসার নামে জমি ক্রয় করা হয় তাহলে আমাদের জমি কই।
এ বিষয় নিয়ে আমরা পুলিশকে জানাই তারা প্রত্যক্ষদর্শী হয়ে দেখেছে কোন প্রতিবাদ করেনাই তাই আমরা জীবনের ভয়ে তে মামলা করতে পারি নাই।

জমি দখল করি বিএনপির ক্যাডার আসলাম শরীফ ওরফে হানিফের সঙ্গে কথা বললে তিনি বলেন ,জলিল বিশ্বাস একজন ভূমিদস্যু দীর্ঘদিন ধরে আমার জমি জবর দখলে রেখেছিল তাই আমি পৌরসভায় অভিযোগ করি অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুইপক্ষের সমাধানের জন্য পৌর মেয়র পৌরসভার নাজমুল ইসলাম জিন্না সার্ভেয়ারের দিয়ে জমি মেপে দু’পক্ষকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। আর আমরা কোনো ঘরবাড়ি ভাঙি নাই তারাই ঘরবাড়ি ভেঙে নিয়েছে। আওয়ামী লীগ দল ক্ষমতায় থাকা সত্ত্বে আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতির ঘরবাড়ি আমি ভাঙবো এত বড় দুঃসাহস আমার এখনো পর্যন্ত হয়নি। আপনাদের কাছে এটি মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।

এ বিষয়ে পাংশা পৌরসভার পৌর মেয়র মাসুদ বিশ্বাসের সঙ্গে কথা বললে তিনি বলেন আসলাম শরীফ ওরফে হানিফের সম্পত্তি আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি জলিল বিশ্বাস দীর্ঘদিন ধরে জবর দখলে রেখেছে ।এ বিষয়ে অভিযোগ করলে সমঝোতার প্রেক্ষিতে পৌরসভার সার্ভেয়ার মোহাম্মদ নাজমুল ইসলাম জিন্নাহ এর মাধ্যমে দু’পক্ষকেই জমি মেপে বুঝে নেওয়ার জন্য নোটিশ করা হয়। কিন্তু আমি দখলকৃত জায়গায় কোন স্থাপনা থাকলে তা ভাঙ্গার কথা বলতে পারিনা বা বলি নাই কারণ গভমেন্ট আমাকে সে ক্ষমতা দেয়নি। যদি তারা ঘর ভেঙে থাকে তাহলে সম্পন্ন আইন বিরোধী কাজ করেছে। কারণ কোর্ট এর অর্ডার ছাড়া অবৈধ স্থাপনা থাকলেও সেটি উচ্ছেদ সম্ভব নয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: এন আর